• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯

‘অর্থ কখনো মানুষকে সুখী করেনি, করবেও না’

‘অর্থ কখনো মানুষকে সুখী করেনি, করবেও না’

প্রতিকী ছবি

উক্তি ডেস্ক

বাংলায় বহুল প্রচলিত প্রবাদ ‘অর্থই অনর্থের মূল’। এর অর্থ দাঁড়ায়, যত অনিষ্ঠ, যত খারাপ, যত সংকট, এর সবকিছুই মূলেই অর্থ। অর্থ আপনার কাছে অধিক থাকলেও সমস্যা, আবার অর্থ একেবারে না থাকলেও সমস্যা। অনেকেই মনে করেন, সুখী হওয়ার জন্য অর্থের বিকল্প নেই।

কিন্তু চিন্তাশীলরা বলছেন ভিন্ন কথা। যেমন বেঞ্জামিন ফ্রাঙ্কলিন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম এই প্রতিষ্ঠাতা বলে গেছেন-‘অর্থ কখনোই মানুষকে সুখী করেনি, করবেও না’। বিখ্যাত এই মনীষী তার এই উক্তি দিয়ে মূলত বুঝাতে চেয়েছেন, সুখী হওয়ার জন্য অর্থ মুখ্য নয়।

মনোবিজ্ঞানের ভাষায় সুখ একটি আপেক্ষিক বিষয়। সুখের কোনো রূপ নেই। বরং সুখ ভোগ ও সুখী পরিবেশ বোঝানো যেতে পারে। আপনি কতটুকু সুখী, সেটি আপনার আচরন, জীবনযাত্রা, কর্মকাণ্ড ও মানসিক সতেজতা দেখে উপলব্ধী করা যায়। কে কতটুকু সুখী সেটি অর্থের মাপকাঠিতে কখনোই বিচার্য নয়।

বিশে^র বহু বিত্তশালী অঢেল অর্থের মালিক হয়েও ব্যক্তিগত জীবনে বিভীষিকাময় সময় কাটিয়েছেন। কেউ কেউ বেছে নিয়েছেন আত্মহত্যার মত ভ্রান্ত পথ। এরকম নজির ভুরিভুরি। আর এসব ঘটনার যোগসূত্র বেঞ্জামিন ফ্রাঙ্কলিনের মতো মনীষীদের এটা বলতে বাধ্য করেছে যে, ‘অর্থ কখনো কাউকে সুখী করেনি, করবেও না’।

১৬ মে ২০২২, ০৭:১০পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।