• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯

টি-টোয়েন্টির পর টাইগারদের ওডিআই সিরিজ হার

টি-টোয়েন্টির পর টাইগারদের ওডিআই সিরিজ হার

স্পোর্টস প্রতিবেদক

টি-টোয়েন্টিতে সিরিজ হারের পর এবার ওয়ানডে সিরিজেও হারল বাংলাদেশ। রবিবার হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে টাইগারদের ১৫ বল হাতে রেখে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে জয় নিশ্চিত করেন জিম্বাবুয়ের অলরাউন্ডার সিকান্দার রাজা। এরই মধ্যে দিয়ে ২০১৩ সালের পর, অর্থাৎ দীর্ঘ ৯ বছর পর বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের স্বাদ পেল জিম্বাবুয়ে।

টুর্নামেন্টে টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে বাংলাদেশকে পরাজয়ের মুখে ঠেলে দেন রাজা। তার সঙ্গে সেঞ্চুরির করেছেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক রেগিস চাকাভাও।

ক্যারিয়ারের সবচেয়ে সেরা ফর্মে থাকা জিম্বাবুয়ে অলরাউন্ডার সিকান্দার রাজা প্রথম ওয়ানডেতে অপরাজিত ১৩৫ রান করেছিলেন। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে তার ব্যাট থেকে আসে ১১৭ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। ব্যাটিংয়ে এমন রাজকীয় ইনিংস খেলার পাশাপাশি বল হাতে ১০ ওভারে ৫৬ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট। যা জিম্বাবুয়ের পক্ষে সর্বোচ্চ।

টাইগারদের দেওয়া ২৯১ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়ে ২৭ রানে ৩ উইকেট এবং ৪৯ রানে ৪ উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। পঞ্চম উইকেট জুটিতে রাজা-রেগিস চাকাভার ২০১ রানের রেকর্ড পার্টনারশিপ বাংলাদেশকে নিশ্চিত পরাজয়ের সামনে নিয়ে দাঁড় করায়। আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে পঞ্চম উইকেটে এর আগে দুইশ রানের জুটি ছিল না তাদের। অধিনায়ক চাকাভা ৭৫ বলে ১০২ রান করে মিরাজের বলে তামিমের ক্যাচে পরিণত হন।

অধিনায়ক চলে গেলেও ম্যাচটি নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। অভিষেক হওয়া টনি রাজাকে সঙ্গ দিতে গিয়ে ব্যাট জোরে ব্যাট চালান। তার ব্যাট থেকে ২ ছক্কা ও ২ চারের মারে ১৬ বলে ৩০ রান যোগ করে। ৪৭তম ওভারের তৃতীয় বলে জিম্বাবুয়ের প্রয়োজন ৪ রান। হাতে বল ১৬টি। রাজা রাজকীয় স্টাইলে ব্যাট চালিয়ে বাউন্ডারি হাঁকান এবং ম্যাচ ও সিরিজ জয় নিশ্চিত করেন।

টাইগারদের পক্ষে হাসান মাহমুদ ও মেহেদি মিরাজ দুটি করে উইকেট নেন, তাইজুল নেন ১টি। ব্যাট হাতে মাহমুদুল্লাহ ৮৪ বলে ৮০, তামিম ৪৫ বলে ৫০, আফিফ ৪১ বলে ৪১ এবং শান্ত ৫৫ বল খেলে ৩৮ রান সংগ্রহ করেন।

০৭ আগস্ট ২০২২, ১০:৪৬পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।