• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯

জনপ্রিয়তায় শীর্ষ বাহন মোটরসাইকেল : উদ্ভাবনের ইতিকথা

জনপ্রিয়তায় শীর্ষ বাহন মোটরসাইকেল : উদ্ভাবনের ইতিকথা

ছবি- সংগৃহিত

ফিচার ডেস্ক

গল্পটি ১৮ শতকের শেষের। যেই সময় দুই চাকার পেট্রোল চালিত একটি যন্ত্র বিশ্বকে অবাক করে দিয়েছিল। দ্রুতগতি সম্পন্ন, আয়তনে ছোট ও সহজে বহনযোগ্য হওয়ায় অল্পদিনেই সারাবিশ্বে ব্যক্তিগত যানবাহন হিসেবে মোটরসাইকেল জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। সব থেকে কম সময়ে মোটরসাইকেল পৃথিবীর দিকে দিকে মহাসড়ক দাপিয়ে বেড়াতে শুরু করে।

উদ্ভাবন

ইনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকা’র তথ্য বলছে, ১৮৯৪ সালে ‘হাইডের্ব্যান্ড এন্ড উলফমুলার’ নামের প্রথম পেট্রোল চালিত বাণিজ্যিক মোটর সাইকেল বাজারে আসে। প্রকৌশলী উলফমুলারে নেতৃত্বে বাষ্প ইঞ্জিনের অন্যতম গবেষক হেনরিক আর হাইডের্ব্যান্ডের প্রচেষ্টায় এই মোটরসাইকেল আলোর মুখ দেখে। জার্মানির মিউনিখে উদ্ভাবিত হয় পেট্রোল চালিত বিশ্বের প্রথম মোটর সাইকেল।

ইতিহাস বলছে, ১৮৯৪ সালের ২০ জানুয়ারি দুই সিলিন্ডারের চার-স্ট্রোক ইঞ্জিনের মোটর সাইকেলটির পেটেন্ট অনুদিত হয়। মোটর সাইকেলটির অনুমোদিত পেটেন্ট এর ওজন ছিল মাত্র ৫০ কেজি। ১৪৮৯ সিসির বাইকটির সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ৪৫ কি.মি. প্রতি ঘণ্টা।

বাণিজ্যিক উৎপাদন

বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে মোটরসাইকেলের উৎপাদন শুরু হতে ১৮৮৫ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়। এরপর ১৮৮৫ সালে জার্মান বিজ্ঞানী গোতেলেব ডাইমলের ও উইলহেম মেব্যাক ইন্টার্নাল কম্বাস্টোন ইঞ্জিনের বা তাপীয় ইঞ্জিনের মোটর বাইক উদ্ভাবন করেন। তবে শুধু মাত্র একটি নমুনা আবিষ্কারের মধ্যেই তা সীমাবদ্ধ থাকে।

হাইডের্ব্যান্ড এন্ড উলফমুলারের আবিষ্কৃত মোটরসাইকেল ১৯১৯ সালে বন্ধ হয়ে যায়। এর আগ পর্যন্ত সারা বিশ্বে প্রায় দুই হাজার মোটরসাইকেল বিক্রি হয়। জানা গেছে, প্রথমদিকে মোটরসাইকেল প্রস্তুতকারী কোম্পানিগুলো মধ্যে তুরিম্প, রয়্যাল এনফিল্ড, নর্টন, বার্মিংহাম স্মল আর্মস, হার্লেডেভিডসন মোটরসাইকেল উৎপাদন করে। এছাড়া এশিয়া মহাদেশের হোন্ডা, কাওয়াসাকি, সুজুকি মোটর কর্পোরেশন দীর্ঘকাল ধরে মোটরবাইক প্রস্তুত করছে।

২০ জুন ২০২২, ০২:২৫পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।