• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯

‘মৃত্যুই হয়তো জীবনের সবচেয়ে বড় আশীর্বাদ’

‘মৃত্যুই হয়তো জীবনের সবচেয়ে বড় আশীর্বাদ’

প্রতিকী ছবি

উক্তি ডেস্ক

প্রত্যেক প্রাণীই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করবে। মৃতুই প্রতিটি জীবনের অবধারিত যবনিকা। সৃষ্টিজগতের এমন কোনো প্রাণী নেই, যা মৃত্যুর স্বাদ পায়নি বা মৃত্যের মুখে পতিত হবে না। মৃত্যুর ধারণা, মৃত্যুচিন্তা ও মৃত্যুর মতো করুণ পরিণতি আছে বলেই, মানুষ হয়তো শৃঙ্খলিত। জীবনাবসানের নিশ্চিত পরিণতি কেউ অস্বীকার করতে পারবেনা। কাজেই মৃত্যু যেমন জীবনের পরিসমাপ্তি ঘটায়, তেমনি মৃত্যু জীবনকে সুন্দরও করে।

বিখ্যাত গ্রিক দার্শনিক ও তৎকালীন শ্রেষ্ঠ শিক্ষক সক্রেটিস বলেছেন-‘মৃত্যুই হয়তো জীবনের সবচেয়ে বড় আশির্বাদ’।

প্লেটোর শিক্ষক এই বিখ্যাত মনীষী মূলত বুঝাতে চেয়েছেন, মৃত্যু অবধারিত। মৃত্যুর মধ্যদিয়ে জীবনাবসান ঘটে। মানুষ বেঁচে থাকতে চায়। কিন্তু মানুষের আজীবন বেঁচে থাকার স্বপ্নে মৃত্যু এক নির্মম বাস্তবতা। মৃত্যুর চিন্তা ও মৃত্যু ছিল বলেই মানুষ বেঁচে থাকার গুরুত্ব বুঝতে পারে।

সক্রেটিসের ভাষ্যমতে, মৃত্যু আছে বলেই মানুষ বেঁচে থাকার আকুলতা প্রকাশ করে। মৃত্যুর মতো নির্মম অবধারিত পরিণতির ভয়েই মানুষ জাগতিক জীবনে সুশৃঙ্খল হয়ে বেঁচে থাকে। মৃত্যুর মতো কঠিন পরিণতির আছে বলেই মানুষ মানবিক হয়।

বিখ্যাত এই মনীষীর সঙ্গে অন্যান্য বহু খ্যাতিমান ব্যক্তিবর্গ মৃত্যু সম্পর্কে কালজয়ী সব উক্তি করে গেছেন। কেউ বলেছেন, মৃত্যুই শাশ্বত। আবার কেউ বলেছেন-‘মৃত্যু এমন এক পরিণতি, যা বেঁচে থাকার স্বাদ বাড়ায়’। তবে সক্রেটিসের ভাষায়, মৃত্যু একটি আশির্বাদ, যা স্বয়ং স্রষ্টা কর্তৃক প্রদত্ত। মৃত্যু এমন এক আশীর্বাদ, যা মানুষের যাবতীয় স্বাদ-বিষাদের রঙ নিয়ন্ত্রণ করে।

২৩ জুন ২০২২, ০১:৫০পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।