• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯

‘মনুষ্যত্বের সবচেয়ে বড় পরাজয়ের নাম যুদ্ধ’

‘মনুষ্যত্বের সবচেয়ে বড় পরাজয়ের নাম যুদ্ধ’

প্রতিকী ছবি

উক্তি ডেস্ক

যুদ্ধ ভয়ঙ্কর। অমানবিকতার নিদর্শন যুদ্ধ-বিগ্রহ। মানুষে মানুষে হানাহানি, রক্তপাত, জীবননাশ ও সম্পদের অগনিত ক্ষয়ক্ষতির নামই যুদ্ধ। দেশে দেশে যুদ্ধের দামামা যখন বেঁজে ওঠে, মানবতা তখন ব্যর্থ হয়। মানুষ চাইলেই যুদ্ধ এড়ানো সম্ভব। যুদ্ধহীন পৃথিবীর স্বপ্ন দেখে সৃষ্টিশীল কোমল স্বপ্ন বুনে চলা মানুষেরা। মানবিক গুণাবলী সম্পন্ন মানুষের বড় গুণ মনুষ্যত্ব। এই মনুষ্যত্ব যখন হারিয়ে যায়, মানুষ তখন হিংস্র হয়ে ওঠে।

পোল্যান্ডের বিখ্যাত ধর্মযাজক, সমাজসংস্কার ও পন্ডিত ব্যক্তিত্ব পোপ জন পল বলেছেন-‘মনুষ্যত্বের সবচেয়ে বড় পরাজয়ের নাম যুদ্ধ’।

বিখ্যাত এই পোপের কালজয়ী এই উক্তির মর্মার্থ মূলত খুবই পরিস্কার। মানুষ যখন মানবিক গুণাবলী হারিয়ে ফেলে, মানুষের যখন মনুষ্যত্ব লোপ পায়, মানুষ যখন অমানবিক হয়ে ওঠে, তখনই কেবল হিংস্রতার বহিঃপ্রকাশ ঘটে।

এই চিত্র পরিবার, সমাজ কিংবা রাষ্ট্র, সবখানে একই ভাবে ফুটে ওঠে। রাষ্ট্র পরিচালনায় যারা নিবেদিত, তাদের মনুষ্যত্ব যখন লোপ পায়, তখনই অন্যদেশের সঙ্গে সম্প্রদায়ের সঙ্গে বিরোধ দেখা দেয়। নেতৃত্ব যখন স্বার্থনির্ভর হয়ে ওঠে, নেতৃত্বে থাকা মানুষেরা যখন ব্যক্তিগত সুবিধাভোগে উন্মাদ হয়ে পড়ে, তখনই তাদের বিবেকবোধ ও মনুষ্যত্ব লোপ পায়। আর এর চূড়ান্ত ফল হলো যুদ্ধ। স্বার্থ ছাড়া পৃথিবীতে কখনো যুদ্ধ লাগেনি।

মানুষে মানুষে যত বিরোধ তার সবটুকুই স্বার্থ কেন্দ্রিক। যুদ্ধ মানেই প্রাণহানী, ধ্বংস, আগুন। মনুষ্যত্ব টিকিয়ে রাখতে বিবেকবোধ জাগ্রত রাখার পাশাপাশি মানবিক গুণাবলীতে নিজেকে বলিয়ান রাখা উচিত।

১৯ জুন ২০২২, ১১:৫৭এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।