• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯

‘প্রেমের চূড়ান্ত রূপ হলো ক্ষমা’

‘প্রেমের চূড়ান্ত রূপ হলো ক্ষমা’

প্রতিকী ছবি

উক্তি ডেস্ক

 

ক্ষমা মহৎ গুণ। মানুষের মানবিকতা ফুটে ওঠে ক্ষমাপ্রদর্শনের মাধ্যমে। একজন মানুষ কতটা হৃদয়বান, একজন মানুষ কতটা মানবিক তা কেবল তার ক্ষমা করার মাধ্যমেই প্রকাশ পায়। সব মানুষ ক্ষমা করার যোগ্যতা রাখে না। ক্ষমা করার মতো মানসিক সক্ষমতা সবার থাকে না। তবে মানুষ যখন হৃদয়ে ভালোবাসা পুষে রাখে, তখনই কেবল মানুষ ক্ষমা করার মতো মানসিকতা প্রদর্শন করে।

বিখ্যাত মার্কিন ধর্মগুরু রিনোল্ড নেইবার বলেছেন- ‘প্রেমের চূড়ান্ত রূপ হলো ক্ষমা’। বিখ্যাত এই ধর্মযাজক বুঝাতে চেয়েছেন, প্রেমহীন মানুব হৃদয় মূল্যহীন। মানুষ মানেই প্রেমপূর্ণ হৃদয়ের জয়োগান। প্রেমের মাঝেই মানুষের আবাস। আর সেই প্রেম প্রকাশ পায় কেবল একজন মানুষ কতটুকু ক্ষমাশীল তার ওপর।

বিখ্যাত ব্যক্তিরা যুগে যুগে ক্ষমা প্রদর্শন ও ক্ষমা করার গুণকে মহিমান্বিত গুণ হিসেবে উল্লেখ করে গেছেন। স্বয়ং স্রষ্টাও ক্ষমাশীল। মহান সৃষ্টিকর্তার গুণগুলোর মধ্যে ক্ষমাশীলতা বিশেষ ভাবে মহিমান্বিত। স্রষ্টা ক্ষমাশীল বলেই পৃথিবীর সব খারাপ ও বদ কাজের কর্তারা টিকে আছেন। এটাই মহৎ গুণ।

মানুষের প্রতি মানুষের যে টান, সেই টানের নামই মানবতা বা মানবিকতা। এই মানবতা প্রকাশ পায় কেবল ক্ষমা করার সক্ষমতার ওপর। আপনি যতটা ক্ষমা করতে পারবেন, আপনার হৃদয়ের প্রেম ততবেশি প্রকাশ পাবে। প্রেমের কাজই হলো হৃদয়ে ক্ষমা করার সক্ষমতা বৃদ্ধি করা।

১৮ জুন ২০২২, ০১:২৯পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।