• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

তরকারি কিংবা সালাদ: পুষ্টিগুণে সমান বাঁধাকপি

তরকারি কিংবা সালাদ: পুষ্টিগুণে সমান বাঁধাকপি

প্রতিকী ছবি

ফিচার ডেস্ক১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:০৫পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

দরজায় কড়া নাড়ছে শীত। মৌসুমী বায়ু বিদায় নিয়েছে অল্প ক’দিন হলো। এরই মধ্যে ভোর ও সন্ধ্যায় দেখা মিলছে হালকা কুয়াশা। বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে শীতের আগমনী আমেজ শুরু হয়ে গেছে। শীত মানেই মাঠের পর মাঠ শাক-সবজির আবাদ। বিশেষ করে ফুলকপি, বাঁধাকপি, গাজর, মুলা, পালংশাক, শিম, মটরশুঁটি, টমেটো শীতকালে বেশি পাওয়া যায়। এসব সবজির মধে বাঁধাকপি অত্যন্ত পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ একটি সবজি। এটি সালাদ হিসেবেও খাওয়ার প্রচলন রয়েছে।

প্রিয় পাঠক, আমরা এই পর্বে বাঁধাকপির পুষ্টিগুণ নিয়ে কিছু তথ্য দেয়ার চেষ্টা করেছি। চলুন দেখে নেয়া যাক, কি আছে বাঁধাকপিতে-

পরিচয়:
বাঁধাকপির ইংরেজি নাম Cabbage। এটিকে অনেকেই পাতা কপি বলে থাকেন। তবে এটি কেইল (keil) নামেও পরিচিত। যা মূলত বাঁধাকপির একটি নির্দিষ্ট জাত (ব্রাসিকা অলেরাসিয়া)। যার পাতা খাওয়ার জন্য চাষ করা হয়। এটি দিয়ে কোথাও কোথাও শোভা বর্ধণের কাজও করা হয়। বাঁধাকপিকে ব্রাসিকা অলেরাসিয়ার অনেক পোষা জাতের চেয়ে বন্য বাঁধাকপির কাছাকাছি জাতের বলে মনে করা হয়।

পুষ্টিগুণ:
যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক জনপ্রিয় স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট হেলথলাইন ও উইকিপিডিয়াতে প্রকাশিত নিবন্ধে বাঁধাকপির পুষ্টিগুণ নিয়ে চমকপ্রদ তথ্য দেয়া হয়েছে। পৃথক নিবন্ধে বলা হয়েছে, বাঁধাকপিতে রয়েছে পর্যাপ্ত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন, মিনারেলস ও খনিজ উপাদান। এতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন বি, ভিটামিন সি, আয়রন, ক্যালসিয়াম, প্রোটিন, পটাসিয়ামসহ নানা উপাদান।

প্রতি ১০০ গ্রাম কাঁচা বাঁধাকপিতে রয়েছে-

ক্যালরি- ২০৭ কিলোক্যালরি,
শর্করা- ৮.৮ গ্রাম,
চিনি- ২.৩ গ্রাম,
খাদ্য আঁশ- ৩.৬ গ্রাম,
স্নেহ পদার্থ- ০.৯ গ্রাম,
প্রোটিন- ৪.৩ গ্রাম,
ভিটামিন বি১- ০.১১ মিলিগ্রাম,
ভিটামিন বি২- ০.১৩ মিলিগ্রাম,
ভিটামিন বি৩- ১.০ মিলিগ্রাম,
ভিটামিন বি৫- ০.৯ মিলিগ্রাম,
ভিটামিন বি৬- ০.২৭ মিলিগ্রাম,
ভিটামিন সি- ১২০ মিলিগ্রাম,
ভিটামিন ই- ১.৫৪ মিলিগ্রাম,
ভিটামিন কে- ৩৯০ আইইউ,
ক্যালসিয়াম- ১৫০ মিলিগ্রাম,
আয়রন- ১.৫ মিলিগ্রাম,
ম্যাগনেসিয়াম- ৪৭ মিলিগ্রাম,
ম্যাঙ্গানিজ- ০.৬৬ মিলিগ্রাম,
ফসফরাস- ৯২ মিলিগ্রাম,
পটাসিয়াম- ৪৯১ মিলিগ্রাম,
সেলেনিয়াম- ০.৯ আইইউ,
সোডিয়াম- ৩৮ মিলিগ্রাম,
জিংক- ০.৬ মিলিগ্রাম।

উপকারিতা:
বাংলাদেশ কৃষিতথ্য সার্ভিস, মার্কিন ওয়েবসাইট হেলথলাইন ও উইকিপিডিয়ার তথ্য বলছে, বাঁধাকপি-

কিডনি সমস্যা প্রতিরোধ করে: কিডনি সমস্যা প্রতিরোধে বাঁধাকপি দারুণ ভাবে কাজ করে। যারা কিডনির সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে ডায়ালাইসিস করিয়ে থাকেন, তাদের জন্য কাঁচা বাঁধাকপি বেশ উপকারী।

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে: এই সবজিটি ক্যান্সার সৃষ্টিকারী টিউমারের বৃদ্ধি রোধ করে। এতে থাকা শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীর থেকে ফ্রি রেডিকেল দূর করে শরীরকে ক্যান্সার মুক্ত রাখে।

হজমশক্তি বাড়িয়ে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে: বাঁধাকপিতে থাকা ফাইবার বা আঁশ হজম প্রক্রিয়াকে সহজ করে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। বাধাকপির রস নিয়মিত পান করলে পেপটিক আলসার দূর হয়। এছাড়া বাধাকপি বুক জ্বালা-পোড়া ও পেট ফাঁপা সমস্যা নিরাময় হয়।

হাড় ভালো রাখে: বাঁধাকপিতে রয়েছে প্রচুর ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও সোডিয়াম, যা হাড়ের বিভিন্ন সমস্যা দূর করে। এছাড়াও বাঁধাকপিতে উপস্থিত ভিটামিন হাড়কে মজবুত রাখতে সাহায্য করে।

ওজন কমাতে সহায়তা করে: এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে খাদ্যআঁশ বা ফাইবার, যা কোন ক্যালরি ছাড়াই পেট ভরাতে সাহায্য করে। যাঁরা ওজন কমাতে চান তাঁরা তাঁদের প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় বাঁধাকপি রাখুন। বাঁধাকপিতে খুবই সামান্য পরিমাণে কোলেস্টেরল ও চর্বি রয়েছে। ফলে সহজেই আপনার ওজন কমতে পারে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: বাঁধাকপিতে প্রচুর ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে, যা দেহের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

আলসার নিরাময়ে কার্যকরী: বাঁধাকপি আলসার নিরাময় ও প্রতিরোধে বিশেষভাবে সহায়ক। গবেষকরা বলছেন, বাঁধাকপির রস আলসার নিরাময়ে বেশ কার্যকরী।

তথ্যসূত্র: হেলথলাইন, বাংলাদেশ কৃষি তথ্য সার্ভিস, উইকিপিডিয়া ও জি নিউজ

 

এবি/এসএন

হৃদরোগ ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে অনন্য ‘ননিয়া শাক’

হৃদরোগ ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে অনন্য ‘ননিয়া শাক’

ঢাকাই রান্নার ঐতিহ্যবাহী একটি পদ ‘ননিয়া শাক দিয়ে গরুর মাংস’।

দরজায় কড়া নাড়ছে ওমিক্রন, সতর্ক থাকুন

দরজায় কড়া নাড়ছে ওমিক্রন, সতর্ক থাকুন

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এখন বেশ কম। তার পরও আত্মতুষ্টিতে ভোগার

কাঁচা বাদাম নাকি ভাজা বাদাম: কোনটা উপকারী

কাঁচা বাদাম নাকি ভাজা বাদাম: কোনটা উপকারী

উদ্ভিজ উৎস থেকে আমিষের চাহিদা পূরণের সেরা উৎস ‘বাদাম’। পিঠা,