• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

জটিল রোগ নিরাময়ে ‘অলিভ অয়েল’

জটিল রোগ নিরাময়ে ‘অলিভ অয়েল’

প্রতিকী ছবি

ফিচার ডেস্ক

উপকারী তেলের মধ্যে সবার সেরা অলিভ অয়েল। পবিত্র কোরআনে অলিভকে ‘জয়তুন’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। এটি যে মানবদেহের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান, তার প্রমাণ মিলেছে বৈজ্ঞানিক গবেষণায়। মার্কিন গবেষকদের একটি দল অলিভ অয়েলের পুষ্টি উপাদান নিয়ে নানা ধরণের চমকপ্রদ তথ্য দিয়েছেন। যা মেডিকেল নিউজ টুডে ডট কম ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়েছে।

স্বাস্থ্যবিষয়ক টিপস প্রকাশক ওয়েবসাইট মেডিকেল নিউজ টুডে ও হেলথলাইন ডট কম অলিভ অয়েলে নিয়ে অজানা নানা তথ্য প্রকাশ্যে এনেছে। যা পাঠকদের জন্য এই পর্বে আমরা তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। চলুন দেখে নিই কি আছে অলিভ অয়েলে-

পরিচয়

অলিভ এক ধরণের ফল। যা থেকে তেল উৎপন্ন হয়। এটিকে আরবিতে বলে জয়তুন। যার বৈজ্ঞানিক নাম Olea europaea। আমরা অনেকেই জলপাই, অলিভ ও জয়তুনকে এক সঙ্গে মিলিয়ে ফেলি। কিন্তু আমরা জানি না, এই দুটি ফল সম্পূর্ণ আলাদা।

পুষ্টি উপাদান

মেডিকেল নিউজ টুডে ডট কমে প্রকাশিত প্রবন্ধে মার্কিন কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) তথ্য সূত্রে জানানো হয়েছে, অলিভ অয়েলে রয়েছে ক্যালরি, ভিটামিন সি, ক্যালসিয়াম, চর্বি, ভিটামিন কে, ভিটামিন ই, পটাসিয়াম, ফসফরাস। এছাড়া এতে রয়েছে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্টসহ অন্যান্য উপকারী খনিজ উপাদান।

মার্কিন কৃষি বিভাগের তথ্য বলছে, প্রতি ১০০ গ্রাম অলিভ অয়েলে রয়েছে-

ক্যালরি- ১১৯ কিলোক্যালরি,
চর্বি- ১৩.৫ গ্রাম,
ভিটামিন ই- ১.৯ মিলিগ্রাম,
ভিটামিন কে- ৮.১৩ মিলিগ্রাম।

উপকারিতা

অলিভ অয়েলের নানাবিধ উপকারিতা নিয়ে পুষ্টিবিদ ও চিকিৎসা গবেষকদের মতামত প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজ ও আনন্দবাজার। প্রকাশিত নিবন্ধগুলোতে পুষ্টিবিদরা যে মতামত দিয়েছেন তা হল-

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: অলিভ অয়েলে রয়েছে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। এছাড়া দুরারোগ্য ব্যাধি নিরাময়েও এটি কার্যকরী।

হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়: এতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন ই এবং ভিটামিন কে, যা প্রদাহ দূর করে। পাশাপাশি অলিভ অয়েল রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে। ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে।

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে: অলিভ অয়েল প্রদাহবিনাশী। এতে রয়েছে ভিটামিন সি, পটাসিয়াম ও ফসফরাস। এসব উপাদান ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়।

হজমশক্তি উন্নত করে: ভিটামিন সি ও আঁশসমৃদ্ধ হওয়ায় অলিভ অয়েল পরিপাকে সহায়তা করে। ফলে হজমশক্তি উন্নত হয়।

হাড়ের জয়েন্ট ও বাত ব্যথা নিরাময়: হাড়ের জয়েন্টের ব্যথা উপশম ও বাত ব্যথা নিরাময়ে খুবই কার্যকরী একটি উপাদান অলিভ অয়েল। এতে রয়েছে এমন কিছু খনিজ উপাদান, যা ব্যথা নিরাময়ে কাজ করে।

ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখে: অতিরিক্ত ওজন নিয়ে যারা বিড়ম্বনায় পড়েছেন, তারা নিয়মিত এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল রান্নায় এবং সালাদে ব্যবহার করতে পারেন। এতে আপনাদের শরীরে জমে থাকা অতিরিক্ত ফ্যাট দূর হবে।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে: যারা টাইপ-২ ডায়াবেটিসে ভুগছেন, তারা অলিভ অয়েল খেতে পারেন। এটি রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণ করে এবং ইনসুলিন বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে বিষয়টি প্রমাণিত বলে দাবি করেছেন মার্কিন গবেষকরা।

ত্বকের সুরক্ষা: চর্মরোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ত্বকের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অলিভ অয়েল অত্যন্ত উপকারী একটি উপাদান। বলিরেখা দূর করতে ও ব্রণ মেছতা নিরাময়ে এটি খুবই কার্যকরী।

সতর্কতা

বাজারে নানান ব্র্যান্ডের এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল রয়েছে। এর সবগুলোই কিন্তু আসল অলিভ অয়েল নয়। কাজেই অলিভ অয়েল কেনার আগে তার মান ও গুণাগুণ যাচাই করুন।

তথ্যসূত্র- মেডিকেল নিউজ টুডে ডট কম, হেলথলাইন ডট কম, আনন্দবাজার ও উইকিপিডিয়া

 

এবি/এসএন

২৯ আগস্ট ২০২১, ০৮:৩১পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।